Learn How To Make Money Online

Search Engine Optimization-সহজ কথায় সম্পূর্ণ SEO (Part-1)--Seo Tips


আমরা ইতিমধ্যে ব্লগস্পটে ফ্রি ব্লগ তৈরি করা শিখে গেছি । এইবার আমাদের কাজ হল আমাদের তৈরি করা এই ব্লগকে সকলের মাঝে তুলে ধরা অর্থাৎ ব্লগে ভিসিটর আনা । এই জন্য আমাদের এস ই ও করতে হবে । তো প্রথমে জানি----


এস ই ও



সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কি?

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হল সেই প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে কোন একটি নির্দিষ্ট সাইটের ভিসিটর বড়ানোর জন্য সেই সাইট কে সার্চ ইঞ্জিন এর রিটার্ন রেজাল্ট লিস্টের উপরে দেখানো হয়ে থাকে। এর মাধ্যমে যে কনো সাইট এর অনলাইন ভিসিবিলিটি বাড়ানো সম্ভব। সক্ষিপ্ত ভাবে এই পদ্ধতি এস ই ও নামে পরিচিত। এটি মুলত সার্চ ইঞ্জিনকে গঠনমুলক রেজাল্ট দেখাতে সাহায্য করে। এই রেজাল্ট নিয়মতান্ত্রিক হয়ে থাকে। যার জন্য এই ভাবে প্রচার করা সাইট বেশি গ্রহণযোগ্য হয়ে থাকে।

এস ই ও শুধু টেক্সট রেজাল্ট না, যেকোনো ধরনের মিডিয়া রেজাল্টকেও সার্চ ইঞ্জিন এর রিটার্ন রেজাল্টের লিস্ট এর উপরের সারিতে আনতে পারে। তাই যে কোন ধরনের কনটেন্ট এর জন্য এস ই ও অবশ্যই প্রয়োজনীয়।

এস ই ও ২ প্রকার--

১. হোয়াইট হ্যাট এস ই ও,
২. ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও

আসলে এস ই ও কে বোধগম্য ভাবে সাজাতে এই দুই ভাগ সবার কাছেই গ্রহনযোগ্য। এই দুই ভাগে এস ই ও এর নৈতিকতা বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

হোয়াইট হ্যাট এস ই ওঃ যে ধরনের এস ই ও এর নিয়ম সার্চ ইঞ্জিন এর রুল এর প্রদত্ত নিয়মের বাইরে যায় না তাকে বোঝানো হয়। সহজ কথায় হোয়াইট হ্যাট এস ই ও হল এস ই ও এর সেই অংশ যা করলে কোন ধরনের বাধা নাই। তাই এই ধরনের এস ই ওর গুরুত্ব বেশি হয়ে থাকে। এবং সকল সার্চ ইঞ্জিন হোয়াইট হ্যাট এস ই ও করার জন্য বলে থাকে। তাই হোয়াইট হ্যাট এস ই ও করা ভাল। হোয়াইট হ্যাট এস ই ও করলে পরে কনো ধরনের সার্চ ইঞ্জিন প্রদত্ত শাস্তি পেতে হয় না।
ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ওঃ যে ধরনের এস এর নিয়ম সার্চ ইঞ্জিন এর রুল এর প্রদত্ত নিয়মের বাইরে যায় তাকে বোঝানো হয়। সহজ কথায় ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও হল এস ই ও এর সেই অংশ যা করতে মানা আছে। । তাই এই ধরনের এস ই ও না করাই উত্তম । এবং সকল সার্চ ইঞ্জিন ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও না করার জন্য বলে থাকে। তাই ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও না করাই ভাল। ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও করলে পরে কনো না কনো ধরনের সার্চ ইঞ্জিন প্রদত্ত শাস্তি পেতে হবেই । তাই সকল সার্চ ইঞ্জিন এক্সপার্টরা ব্ল্যাক হ্যাট এস ই ও থেকে নিজেকে দূরে রাখার কথা বলে থাকেন।

হোয়াইট হ্যাট এবং ব্লাক হ্যাট দুইটিই মুলত দুই ভাগে বিভক্ত--

১. অন পেজ এস ই ও,
২. অফ পেজ এস ই ও

অন পেজ এস ই ওঃ যে ধরনের এস ই ও নিজের ওয়েব সাইট বা ওয়েব পেজ এ করতে হয় তাকে অন পেজ এস ই ও বলে। এই ধরনের এস ই ও কে আপনি গাছের শিকর এর সাথে তুলনা করতে পারেন। অন পেজ এস ই ও না করে অন্য কনো ধরনের এস ই করলে তেমন লাভ হয় না। তাই যে কোন ধরনের সাইট এর জন্য প্রথমে অন পেজ এস ই ও করা খুব ই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার অন পেজ এস ই ও যত ভালো হবে , ততো আপনার সাইট সার্চ ইঞ্জিনে বেশি গ্রহণযোগ্য হবে। তাই অন্য যে কোন ধরনের এস ই করার আগে আপনি যদি অন পেজ এস ই ও করে নেন সেটা অনেক ভাল হয়। সাইট ইউ আর এল, কি ওয়ার্ড , সাইট টাইটেল , কনটেন্ট, মেটা ট্যাগস ইত্যাদি অন পেজ এস ই ও এর আওতায় এসে থাকে।
অফ পেজ এস ই ওঃ যে ধরনের এস ই ও আপনার নিজের ওয়েব পেজ বা সাইট এর বাইরে করতে হয় তাকে অফ পেজ এস ই ও হিসাবে বিবেচনা করা হয়। যদি আপনি আপানার সাইট কে একটি পুতুল এর সাথে তুলনা করেন তবে আপনি অফ পেজ এস ই ও কে বলতে পারেন তার শো-রুম। কারন অফ পেজ এস ই ও এর মাধ্যমে মুলত যে কোন সাইট কে সকলের সামনে উপস্থাপন করা হয়। অফ পেজ এস ই ও ওয়েব পেজ এর দর্শক বারাতে সাহায্য করে। যেমন শো-রুম বৃদ্ধির মাধ্যমে পুতুলটি আপনি বেশি গ্রাহক এর কাছে তুলে ধরতে পারেন, ঠিক সেইভাবে আপনি অফ পেজ এস ই ও এর মাধ্যমে আপনার ওয়েব পেজটি বেশি দর্শক এর নিকট পৌঁছে দিতে পারেন। তাই অফপেজ এস ই যে কোন ধরনের সাইট এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ব্লগ কমেন্ট, ব্যাক-লিঙ্কস, ফোরাম পোস্টিং, গেস্ট ব্লগিং ইত্যাদি অফ পেজ এস ই ও এর  মধ্যে পরে থাকে।


SEO এর প্রথম কাজ-- Keyword নির্বাচনঃ

Keyword কি?

Keyword হচ্ছে এমন একটি শব্দ বা শব্দগুচ্ছ যা আমরা কোন কিছু Search করার জন্য Search Engine ( Google, Yahoo...) এ ব্যবহার করে থাকি । Search Engine বিভিন্ন ব্লগ হতে ঐ শব্দের ওপর ভিত্তি করে আপনাকে ফলাফল এনে দিবে । Keyword নির্বাচন করা অন পেইজ SEO এর একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ।

কিভাবে Keyword নির্বাচন করবেন?

ধরুন আপনি একটি পোস্ট তৈরি করবেন । তো প্রথমে আপনার অই পোস্ট সম্পর্কে ভাবতে হবে এবং SEO করার জন্য অই পোস্টের জন্য একটি ভাল Keyword নির্বাচন করতে হবে । আপনি Keyword নির্বাচনের জন্য Google Adwords: Keyword Planner হতে কি-ওয়ার্ড নির্বাচন করতে পারেন । আমি সবসময় এইটাই ব্যবহার করি । Keyword নির্বাচনের পর এই বিসয়গুলো মনে রেখে পোস্ট করুন । 


  • শিরোনামে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহারঃ 
মনে করি আমরা কী-ওয়ার্ড রিসার্চ করে পেয়ে গেছি। এখন আমরা ঐ কী-ওয়ার্ডটি পোস্টের টাইটেলে যোগ করবো। মনে রাখবেন সার্চ ইন্জিন রাঙ্কে এগিয়ে থাকতে এই ধাপটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারনটা নিজেরাই উওল্পধি করতে পারবেন। দেখুন, আপনি যখন কোন কিছু লিখে সার্চ দিয়ে থাকেন, তখন যে রেসাল্ট পেয়ে থাকেন তাতে দেখবেন, তার টাইটেলে ঐ কী-ওয়ার্ডটি খুজে পাবেন। বুঝতেই পারছেন, seo/ সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন রাঙ্ক ভালো করতে গেলে শিরোনামে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহার করা কতটা গুরুত্বপূর্ণ।


  • উপশিরোনামে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহারঃ

ব্লগস্পটে কোন পোস্ট লিখার জন্য শিরোনাম, উপশিরোনাম গুলো ঠিক মত সাজিয়ে লিখতে হয় , এবং সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন রাঙ্ক বাড়ানোর জন্য কী-ওয়ার্ডেরটি উপশিরোনামে বেবহার করতে হবে। এতে লাভ হবে ২ টা। আপনার লিখা টি দেখতে সুন্দর লাগবে এবং, কী-ওয়ার্ডেরের প্রয়গ অনেক বেশি হাইলাইট হবে, একই সাথে সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন রাঙ্ক বেড়ে যাবে। এই ধাপটি পার করতে ভুলে গেলে চলবে না কিন্তু। সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন অথবা seo করার জন্য প্রতিটি ধাপই গুরুত্বপূর্ণ।


  • পোস্টে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহারঃ
সার্চ ইন্জিনের তালিকাতে শুরুতে আশার জন্য পোস্টে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহার কতটা যে গুরুত্বপূর্ণ ওটা আপনারা নিজেরাই জানেন। আমাকে নতুন করে কিছু বলতে হবে না বলে আশা করি। তাও ছোটো করে বলতেসি শক্তি-শালী seo/ সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন করা পোস্ট লিখতে করতে হলে পোস্টে কী-ওয়ার্ডের ঘনত্ব বাড়াতে হবে। কারন যত বেশি পোস্টে কী-ওয়ার্ডের ব্যাবহার থাকবে, তত বেশি ভালো সার্চ রেসাল্ট পাবেন। একটি ভালো মানের seo/ সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশন মেনে চলা পোস্টের ১.৫%-৪.৫% যায়গাতে কী-ওয়ার্ডের উপস্থিতি থাকে।

  • ৩০০ শব্দের অধিক বড় পোস্ট লিখাঃ
আপনি যদি এখন ছোটো কোন পোস্ট লিখেন, তাহলে ঐ পোস্টে কী-ওয়ার্ডের ঘনত্ব বেশি হলেও, আর বড় পোস্টের তুলনায় আপনার পোস্ট পিছিয়ে যাবে। seo/ সার্চ ইন্জিন অপটিমাইজেশনে এগিয়ে থাকতে হলে আপনাকে অবশ্যই বড় এবং অনেক কী-ওয়ার্ড সমৃদ্ধ পোস্ট লিখতে হবে। তাহলে অনেক ভিসিটর পাওার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। আর এর জন্য আদর্শ হল ৩০০ শব্দের অধিক বড় পোস্ট। খেয়াল করবেন পোস্ট যেন ছোটো হয়ে না যায়।

মুলত এইকাজ গুলো করলে আপনার ব্লগের অন পেইজ এস ই ও ৮০% কমপিট হবে । আর ২০% করার জন্য আপনার ব্লগে মেটা ট্যাগস তৈরি করতে হবে । কিন্তু এই কাজটি করা অনেক কঠিন । তাই আমি সুরুতেই করতে চাচ্ছি না । পরবর্তীতে এটা নিয়ে আলচনা হবে । পরবর্তী পোস্টের জন্য অপেক্ষা করুন । ধন্যবাদ ।


Tags-- seo, what is seo, seo tools, seo marketing, seo optimization, seo tips, seo training, seo ranking, local seo, website seo,  best seo, seo website, seo test, search engine optimization seo, seo web, seo copywriting, web seo, seo link building, seo jobs, seo tutorial, search engine optimization

google+

3 Comments For "Search Engine Optimization-সহজ কথায় সম্পূর্ণ SEO (Part-1)--Seo Tips"

Thank for a nice articulation on SEO. It is a nice post indeed.I wish new article about SEO.

খুব ভালো এক্টি পোস্ট শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ । অনলাইনে আয়ের মধ্যে এস ই ও করে আয়টা আমার খুব ভালো লাগে , এস ই ও গুরুত্তপুন্য টিপস পেতে এই সাইটটি দেখতে পারেন

Ow its a nice post. Thanks for sharing this type of Freelancing tips.
I already bookmarking your site. You can also visit my Freelancing Blog for get some more information about Freelancing Tutorial .

কিছু কথাঃ

এই ব্লগের সমস্ত পোস্ট পরীক্ষিত। তারপরও কোন পোস্ট বা ব্লগ সম্পর্কে আপনার অভিযোগ, মতামত বা সাহায্যের জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন ফেসবুকের পেইজে বা গ্রুপে । আপনার সাফল্যে সহযোগিতা করতে পারলে আমরা সার্থক। আর ব্লগটি আপনার পছন্দের হলে বুকমার্ক করে ও শেয়ার করে আমাদের উৎসাহিত করুন।

Back To Top